দিবারাত্রির কাব্য – মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় বই পিডিএফ ডাউনলোড

0
14

দিবারাত্রির কাব্য- মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় বই পিডিএফ ডাউনলোড

Book Detail  

Book/Note Nameদিবারাত্রির কাব্য
Authorমানিক বন্দ্যোপাধ্যায়
Publisherঅবসর প্রকাশনা সংস্থা
Editions3rd printed, 2013
Total pages104
CategoriesBook Download
PDF QualityHigh
Size5 MB
Downloading status FREE | Buy This Full Book

দিবারাত্রির কাব্য লেখক- মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ধরন-উপন্যাস অবসর প্রকাশনা উপন্যাসের শুরুতে দেখা যায় হেরম্বকে রুপাইকুড়া থানার সামনে দাড়ানো। হেরম্ব এখানে এসেছে মূলত তার প্রাক্তন প্রেমিকা সুপ্রিয়ার কাছে। সুপ্রিয়াকে একদিন সে নিজেই বুঝিয়ে বিয়ে দিয়েছিল দারোগা অশোক এর কাছে। আজ পাঁচ বছর পর সে সুপ্রিয়া কে দেখতে এসেছে। পাঁচ বছরে অনেক কিছু বদলেছে, সে সাথে বদলেছে হেরম্ব এমন কি সুপ্রিয়াও। তত দিনে হেরম্ব বিয়ে করেছিল উমা কে। কিন্তু এক কন্যা সন্তান রেখে হঠাৎ উমা আত্নহত্যা করে। কেন..? তার কোন নির্দিষ্ট কারন উপন্যাসে বলা হয় নি।

এমন কি উমা চরিত্রটিই উপন্যাসে মৃত। তবে সুপ্রিয়ার ধারনা হেরম্ব তাকে ভালোবাসতো বলে উমা আত্নহত্যা করেছে। কিন্তু হেরম্ব তাকে এ ব্যপারে নিরাশ করেছে। পাঁচ বছরে সুপ্রিয়ার যে পরিবর্তন হয়েছে তা হল, সে আগে ছিলো লাজুক ও আচ্ছাদিত। কিন্তু এ পাঁচ বছরে অশোক এর সাথে অসুখী বিবাহিত জীবনে বুনো দেশে কাটিয়ে সে হয়েছে মরিয়া ও দুরন্ত। আর হেরম্ব..!?সে যখন সুপ্রিয়ার কাছে এলো ততোদিনে তার প্রেমের কানাকড়িও বেঁচে নেই। কিন্তু সুপ্রিয়া অশোকের সংসারে থেকেও হেরম্ব এর কাছে ছুটে গিয়েছে অনেক বার।হয়ত এ বাঁধ থেকেই নিজেকে ছাড়াতে হেরম্ব সুপ্রিয়ার স্বামী বাড়ি ত্যাগ করে। এর পরের পাতায় দেখা মিলে অনাথ আর মালতীর।

অনাথ আর মালতী ২০ বছর আগে প্রেম করে বাড়ি ছেড়েছিল। চলে এসেছিল অজানা অচেনা জায়গায়। এই অনাথ আর মালতীর মেয়ে হল আনন্দ। মালতীর বাড়ি এসে হেরম্বর সাথে দেখা হয় আনন্দ এর। উপন্যাস টা ছিল মূলত দিনের কবিতা নামক গল্প। এর পর ছোট গল্পটা উপন্যাস আকারে ধরা পড়ে পাঠকের কাছে । এর সাথে যুক্ত হয় রাতের কবিতা আর দিবারাত্রির কাব্য। পুরো উপন্যাসের কেন্দ্রীয় চরিত্র হলো হেরম্ব। তার জীবনে তিনটি নারীর সংস্পর্শ এসেছে -উমা, সুপ্রিয়া, আনন্দ।সুপ্রিয়া একবার হেরম্বকে বলে বসল, “আপনি মেয়েমানুষের সর্বনাশ করেন ঠিকি, কিন্তু দায়িত্ব নেয়ার সময় হলেই এড়িয়ে যান”। তাই বলে হেরম্ব কিন্তু বদ প্রকৃতির নয়। এটা একটা ম্যাসেজ। যা পাঠক উপন্যাসে পাবেন। দিনের কবিতায় হেরম্ব আর সুপ্রিয়ার ব্যাপ্তি। আর রাতের কবিতায় দেখা মিলে হেরম্বর সাথে আনন্দের।

দিবারাত্রির কাব্যে থাকে সকলের বিচরণ।আর শেষ টা..? তা নাহয় থাকলো উপন্যাসের পাতায়।উপন্যাসে অনেক নাটকীয় ঘটনার সুত্রপাত হয়েছে। সেই সাথে ভয়ংকরও।সমস্ত চরিত্র গুলোর মধ্যে ছিলো অভাব বোধ। ভয়ংকর এক ক্ষুধা! মানুষের মৃত্যু কবলিত জীবন যেমন সার্থক, তেমনি সার্থকতা ক্ষণজীবী হৃদয়েও হয়তো আছে। এই উপন্যাস রূপের রূপক।একটা মোহ কেমন জানি..! টেনে ধরে শেষ পর্যন্ত। পুরো উপন্যাসে হেরম্ব ছিলো অসম্ভব সত্যবাদী।মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় এর কালজয়ী উপন্যাস হলো দিবারাত্রির কাব্য প্রথম প্রকাশিত হয় ১৯৩৫ সালে। লেখক এর সম্পর্কে বলেছেন “এটি গল্পও নয় উপন্যাস ও নয়। এটি হলো রূপকের আরেক রূপ। ” এটি নিয়ে চলচিত্রনির্মান করা হয় ১৯৭০ সালে। ইংরেজী ভাষায় অনূদিত হয়ে নামকরণ হয়, Poetry of the day and poetry of the night. অনুবাদ করেন দীপেন্দু চক্রবর্তী।মানিক বন্দ্যোপাধ্যায় এর প্রকৃত নাম প্রবোধকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি ছিলেন ঔপন্যাসিক এবং ছোটগল্পকার।তিনি ৪২ টি উপন্যাস এবং ২০০ এর অধিক ছোটগল্প লিখেছেন। তার রচনা সমূহ ইংরেজী ছাড়াও বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত

📝 সাইজঃ- 5 MB

📝 পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ 83

বই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে অনলাইন লাইভ প্রিভিউ 🕮 দেখে নিন তারপর সিদ্ধান্ত নিন ডাউনলোড করবেন কিনা।

Live Preview এখান থেকে Scroll করে দেখতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ অডিটর ও জুনিয়র অডিটর পদের প্রশ্ন সমাধান পিডিএফ ডাউনলোড

download-pdf

Direct Download 

Click Here

👀 প্রয়োজনীয় মূর্হুতে 🔍খুঁজে পেতে শেয়ার করে রাখুন.! আপনার প্রিয় মানুষটিকে “send as message”এর মাধ্যমে শেয়ার করুন। হয়তো এই গুলো তার অনেক কাজে লাগবে এবং উপকারে আসবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here