কৃষ্ণপক্ষ – হুমায়ূন আহমেদ বই পিডিএফ ডাউনলোড

0
35

কৃষ্ণপক্ষ – হুমায়ূন আহমেদ বই পিডিএফ ডাউনলোড

Book Detail  

Book/Note Nameকৃষ্ণপক্ষ
Authorহুমায়ূন আহমেদ
Publisher
Editions
Total pages90
CategoriesBook Download
PDF QualityHigh
Size2 MB
Downloading status FREE | Buy This Full Book

‘কৃষ্ণপক্ষ’ উপন্যাসটি হুমায়ুন আহমেদের নিজেরই অত্যন্ত প্রিয় একটি উপন্যাস, এবং সে কথা তিনি নিজেই বিভিন্ন সময় তাঁর নানা রচনার মাধ্যমে জানিয়ে গেছেন। নতুন করে কি তাই এই উপন্যাসকে আর বিশেষায়িত করা বা বিশিষ্টতা দান করার খুব বেশি দরকার আছে? আমার তো মনে হয় না। শুধু একটা কথাই বলতে পারি, শুধু হুমায়ুন আহমেদের লেখাই নয়, বিশ্বের লক্ষ লক্ষ লেখকের লক্ষ লক্ষ সেরা লেখার মধ্য থেকেও আমি এই লেখাটাকে আলাদা করে নিতে পারব। তার অন্তরালের কারণ শুধু এই নয় যে উপন্যাসটা আমার প্রিয় লেখক ও প্রিয় ব্যক্তিত্বের পছন্দের উপন্যাস। আমার কাছে এই উপন্যাসটার গুরুত্ব আলাদা কারণ এই লেখাটি অনেকদিন পর আমার চোখ ঝাপসা করে দিতে সক্ষম হয়েছে। জানি না এই উপন্যাসের উপাদান আসলেই খুব একটা বিয়োগান্ত কিনা আর বিয়োগান্ত হলেও সেটা আরোপিত কিনা বা তাতে কিছুটা হলেও ন্যাকামো মিশে আছে কিনা। সেসব বিচারের দায়িত্ব অন্য পাঠকদের।

আমি শুধু আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলতে পারি, জীবনের একটা খুব চেনা ও পরিচিত গল্পকে হুমায়ুন আহমেদ যেভাবে চেনা ছকের মাধ্যমেই যে আন্তরিকতার সাথে উপন্যাসের পাতায় তুলে এনেছেন, তা আমার হৃদয়কে আন্দোলিত করতে যথেষ্ট ছিল। আমার জানা নেই এত সহজ এবং সাবলীল ভাষায় কিভাবে একজন মানুষ এরকম একটা উপন্যাস লিখতে পারেন। কিন্তু যে কাজটা অন্যদের কাছে অসম্ভব, সেই কাজটাই অনেক বেশি আয়াসের সাথে করে গেছেন হুমায়ুন আহমেদ। ‘কৃষ্ণপক্ষ’ উপন্যাসেও তার কোন ব্যতিক্রম হয়নি। অথচ সেই অতি সাধারণ ভঙ্গিমায় বলে চলা কাহিনীর বিষয়বস্তু আর ঘটনাপ্রবাহ এত বেশি হৃদয়ছোঁয়া ছিল যে তার ফলে সামগ্রিকভাবে তা লেখকের অন্যান্য উপন্যাসের থেকে এই উপন্যাসটিকে এক নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। ‘কৃষ্ণপক্ষ’কে লেখক এর রচনাকালের সাথে তাল মিলিয়ে ‘সমসাময়িক’ বলে আখ্যায়িত করেছিলেন।

সময়ের সাথে সাথে নিশ্চয়ই সমসাময়িকতার যে নির্দিষ্ট সময়কাল তা অতিক্রান্ত হয়ে গেছে। তারপরও আমার কাছে মনে হয়েছে এই উপন্যাসে যে ভালোবাসার কাহিনী তুলে ধরা হয়েছে তা শুধু সমসাময়িকই নয়, তা চিরন্তন। লেখকের বক্তব্যের সাথে দ্বিমতপোষণ করলাম এবং তা দৃষ্টিকটু স্পর্ধা কিনা জানি না। কিন্তু এটুকু আমি জানি, ২০১৪ সালের আজকের এই দিনে এসেও এই উপন্যাসের কাহিনী এতটুকু সেকেলে মনে হবে না। একেবারে বাস্তব বলে গণ্য হবে যেকোন পাঠকের কাছে। একটু আশাপাশে চোখ বুলালেই দেখা যাবে হাজারটা অরু আর হাজারটা মুহিবকে। অরু আর মুহিব হল সেই দুই চরিত্র যারা নিজ নিজ পরিবারের কাউকে না জানিয়ে বিয়ে করে বসে। তাদের দুজনের পারিবারিক প্রেক্ষাপট একেবারে ভিন্ন। কিন্তু ভালোবাসার বাঁধনে আটকা পড়ে তারা বাকি সবকিছু ভুলে বিয়েটা করেই ফেলে। কিন্তু হায়! বিয়েই যে জীবনের সব না তা সৃষ্টিকর্তা তাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিল। এক মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় মারা গেল মুহিব। অরু আর মুহিবের পার্থিব ভালোবাসারও কি বিচ্ছেদ ঘটল না? কে জানে! তাহলে কেন ২৫ বছর পরও অরুর মনে পড়ে যাবে মুহিবের সাথে বিয়ের সেই দিনটার কথা? বাস্তবতা তো এমনই। তারচেয়েও বড় কথা, ভালোবাসার শক্তি যে এতটাই প্রবল। ভালোবাসার এই প্রাবল্যই দারুণভাবে ফুটে উঠেছে এই উপন্যাসে। কিন্তু সেই প্রাবল্যের মান আক্ষরিক অর্থেই এত প্রবল ছিল যে তা যে কারো চোখ ভিজিয়ে দিতে যথেষ্ট। শুধু মুহিব আর অরুর ভালোবাসার কাহিনীই যে এখানে বলা হয়েছে তা না।

অরুর বোন মীরুর কথা এসেছে, মুহিবের বোন জেবার কথা এসেছে, মুহিবের ভাগ্নী প্রিয়দর্শিনীর কথা এসেছে, গাড়ি এক্সিডেন্টের সময় যে বাচ্চা মেয়েটা মুহিবের কোলে ছিল তার কথা এসেছে, মুহিবের দুলাভাইয়ের কথা এসেছে, মুহিবের বন্ধুদের কথা এসেছে, আবার অরুর সাথে যে ছেলেটার বিয়ের কথা চলছিল তার কথাও এসেছে। আপাতদৃষ্টিতে মনে হতে পারে মুহিব আর অরুর ভালোবাসার কাহিনীতে তাদের উল্লেখ অপ্রয়োজনীয়। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে ‘কৃষ্ণপক্ষ’ তো আর শুধু মুহিব আর অরুর ভালোবাসার গল্প না। ভালোবাসাই হল এই গল্পের প্রধান চরিত্র। আর তাই অন্য প্রতিটি চরিত্র এসে ভালোবাসার কনসেপ্টটাকে আরও অনেক বেশি সুদৃঢ় করেছে। সত্যিকারের ভালোবাসার উপন্যাস কাকে বলে তা জানা না থাকলেও, আমাকে যদি কেউ বলে তোমার পছন্দের ভালোবাসার উপন্যাস কোনটা বা কোনগুলো, তার জবাবে যে ছোট্ট তালিকাটা আমার মুখ থেকে বেরিয়ে আসবে তার মধ্যে ‘কৃষ্ণপক্ষ’ এর উল্লেখ অবশ্যই থাকবে।

📝 সাইজঃ- 2 MB

📝 পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ 90

বই সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে অনলাইন লাইভ প্রিভিউ 🕮 দেখে নিন তারপর সিদ্ধান্ত নিন ডাউনলোড করবেন কিনা।

Live Preview এখান থেকে Scroll করে দেখতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ সাহিত্যিকদের উপাধি ছদ্মনাম পিডিএফ ডাউনলোড

download-pdf

Direct Download 

Click Here

👀 প্রয়োজনীয় মূর্হুতে 🔍খুঁজে পেতে শেয়ার করে রাখুন.! আপনার প্রিয় মানুষটিকে “send as message”এর মাধ্যমে শেয়ার করুন। হয়তো এই গুলো তার অনেক কাজে লাগবে এবং উপকারে আসবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here