সাধারণ জ্ঞান

মীর আবদুস শুকুর আল মাহমুদের জীবনী ও রচনাবলী সম্পর্কে সকল তথ্য একসাথে জেনে নিন | All information about Mir Abdus Shukur Al Mahmud

আল মাহমুদ ১৯৩৬ সালের ১১ জুলাই ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার মোড়াইল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর প্রকৃত নাম মীর আবদুস শুকুর আল মাহমুদ। তার পিতার নাম মীর আবদুর রব ও মাতার নাম রওশন আরা মীর। তার দাদার নাম আব্দুল ওহাব মোল্লা যিনি হবিগঞ্জ জেলায় জমিদার ছিলেন।

কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি থানার সাধনা হাই স্কুল এবং পরে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড হাই স্কুলে পড়ালেখা করেন। মূলত এই সময় থেকেই তার লেখালেখির শুরু। আল মাহমুদ বেড়ে উঠেছেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। তিনি মধ্যযুগীয় প্রণয়োপাখ্যান, বৈষ্ণব পদাবলি, রবীন্দ্রনাথ ও নজরুল প্রমুখের সাহিত্য পাঠ করে ঢাকায় আসার পর কাব্য সাধনা শুরু করেন এবং একের পর এক সাফল্য লাভ করেন। তিনি মৃত্যুবরণ করেন ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

এক নজরে আল মাহমুদ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন

All information about Mir Abdus Shukur Al Mahmud

জন্ম মীর আব্দুস শুকুর আল মাহমুদ
১১ জুলাই ১৯৩৬
মোড়াইল গ্রাম, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বাংলাদেশ
মৃত্যু ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ (৮২ বছর)
পেশা কবি, সম্পাদক, সাংবাদিক
জাতীয়তা ব্রিটিশ ভারতীয় (১৯৩৬-১৯৪৭)
পাকিস্তানী (১৯৪৭-১৯৭১)
বাংলাদেশী (১৯৭১-আমৃত্যু)
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৩৬-১৯৪৭)
পাকিস্তান (১৯৪৭-১৯৭১)
বাংলাদেশ (১৯৭১-আমৃত্যু)
সময়কাল বিংশ শতাব্দী
ধরন কবিতা, গল্প, উপন্যাস
বিষয় গ্রামীণ জীবন, নারী
উল্লেখযোগ্য রচনাবলি লোক লোকান্তর
কালের কলস
সোনালি কাবিন
মায়াবী পর্দা দুলে উঠো
কাবিলের বোন (উপন্যাস)পানকৌড়ির রক্ত (গল্পগ্রন্থ)Movies: Taan
উল্লেখযোগ্য পুরস্কার একুশে পদক (১৯৮৬)
বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৬৮)
দাম্পত্যসঙ্গী সৈয়দা নাদিরা বেগম

সোনালী কাবিন সম্পর্কে বিস্তারিত:

“সোনালী কাবিন” আল মাহমুদের একটি শ্রেষ্ঠ কাব্যগ্রন্থ। এটির প্রথম নাম ছিলো “ অবগাহনের শব্দ” । পরে তিনি এটির নামকরণ করেন “সোনালী কাবিন”। গ্রামীণ আবহে রচিত ৪৪ টি কবিতার সংকলনে এই কাব্যগ্রন্থ। এই গ্রন্থে প্রকাশ পেয়েছে বঞ্চিতদের ক্ষোভ, শ্রমিকদের ঘাম, কৃষকের পরিশ্রম ও গ্রামের আবহ। এই কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদ “গোল্ডেন কাবিন” যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত হয়। এই “সোনালী কাবিন কাব্যটির অন্যতম কবিতা হল “নোলক”

 পুরস্কার ও সম্মাননা

  • বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৬৮)
  • জয় বাংলা পুরস্কার (১৯৭২)
  • হুমায়ুন কবীর স্মৃতি পুরস্কার (১৯৭২)
  • জীবনানন্দ স্মৃতি পুরস্কার (১৯৭২)
  • কাজী মোতাহার হোসেন সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৬)
  • কবি জসীম উদ্দিন পুরস্কার
  • ফিলিপস সাহিত্য পুরস্কার (১৯৮৬)
  • একুশে পদক (১৯৮৬)
  • নাসির উদ্দিন স্বর্ণপদক (১৯৯০)
  • ভানুসিংহ সম্মাননা পদক (২০০৪)
  • লালন পুরস্কার (২০১১)

বিগত বছরের চাকরির পরীক্ষায় “আল মাহমুদের” জীবনী ও তার রচনাবলী থেকে যেসব প্রশ্ন এসেছে।

 


Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!