বিসিএস সহ সকল চাকরির পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন-উত্তর পিডিএফ ডাউনলোড

0
418

বিসিএস সহ সকল চাকরির পরীক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন-উত্তর

পিডিএফ ডাউনলোড

সাম্প্রতিক তথ্য

১। আগামী ৭ নভেম্বর মরক্কোর মারাকাস শহরে শুরু হচ্ছে কপ-২২ জলবায়ু সম্মেলন। চলবে ১৮ নভেম্বর পর্যন্ত।

২। ফ্রান্সের প্যারিসে কপ-২১ সম্মেলনে এ শতাব্দীর শেষ নাগাদ পৃথিবীর তাপমাত্রা ১.৫ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের মধ্যে রাখার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে জাতিসংঘভুক্ত সব রাষ্ট্র

৩। সদ্য বিদায়ী অর্থবছরে (2015-16) বাংলদেশে বিনিয়োগে শীর্ষে কোন দেশ ? -আমেরিকা (45 কোটি ডলার ) (যুক্তরাজ্য 31 কোটি ডলার )

৬. বাংলাদেশ ব্যাং কের তথ্যানুযায়ী 2015-16 অর্থবছরে বাংলাদেশে আসা বিনিয়োগের পরিমাণ কত ? -200 কোটি ডলার l

৭. 2015-16 অর্থবছরে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি বিনিয়োগ হয়েছে কোন খাতে ? -বস্ত্র (40 কোটি ডলার )

৮. ন্যাটোর বর্তমান মহাসচিব কে ? -জেনস স্টলটলেনবার্গ l

৯. আমেরিকায় ৫৮তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হবে কবে ? = ৮নভেম্বর

১০। বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম সম্প্রতি বাংলাদেশ সফরে এসে জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি মোকাবিলায় ২০০ কোটি ডলার ঋণ দেওয়ার যে ঘোষণা দিয়েছেন

১১। জাতিসংঘের বর্তমান মহাসচিব কে? = বর্তমান মহাসচিত বান কি মুন (৮ম)। তার মেয়াদ শেষ হবে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬.। ১ জানুয়ারি ২০১৭ থেকে এ্যানথনি গুতেরেস (পর্তুগাল) ৯ম মহাসচিব হিসেবে দায়িত্ব নিবেন।

১২। ‘‘আমি হিমালয় দেখিনি মুজিব দেখেছি’’। উক্তটি কার? = ফিদেল কাস্ট্রো

 

সাম্প্রতিক তথ্য

. …………….

গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্স ২০১৬: নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে বিশ্বে বাংলাদেশের অবস্থান

সপ্তম★★★28 Oct 2016

ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের (ডব্লিউইএফ) ২০১৬ সালের

গ্লোবাল জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্স অনুযায়ী নারীর

রাজনৈতিক ক্ষমতায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশের

সবচেয়ে বেশি অগ্রগতি হয়েছে। একনজরে জেন্ডার গ্যাপ ইনডেক্স ২০১৬:

  • নারীর রাজনৈতিক ক্ষমতায়নে বিশ্বে বাংলাদেশেরঅবস্থান সপ্তম। ২০০৬ সালে ছিল ১৭তম।
  • নারী পুরুষের সমতা প্রতিষ্ঠায় ১৪৪টি দেশের মধ্যে ৭২তম বাংলাদেশ।
  • নারীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান ৯৩তম। গত ১০ বছরে এগিয়েছে ২০ ধাপ।
  • অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড এবং সুযোগ-সুবিধার ক্ষেত্রে বৈষম্য বেড়েছে। ২০০৬ সালে ১০৭তম থাকলেও বর্তমানে এক্ষেত্রে অবস্থান ১৩৫তম।
  • শিক্ষার সমতার ক্ষেত্রে ২০০৬ সালে ৯৫তম অবস্থানে ছিল বাংলাদেশ। ২০১৬ সালে রয়েছে ১১৪তম স্থানে

সাম্প্রতিক তথ্য

নোবেল পুরস্কার -২০১৬

=============

১। শান্তিতে =ম্যানুয়াল সান্তোস ( কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট) ফার্ক বিদ্রোহীদের সাথে ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তির কারণে

২। চিকিৎসা বিজ্ঞানে =ইউশিনোরি ওশুমি (Japan) অটোফ্যাগির মেকানিজম আবিষ্কারের জন্য পেয়েছেন এ স্বীকৃতি।

৩। পদার্থবিজ্ঞান

ক. ডেভিড জে থাওলেস

খ. ডানকান হ্যালডেন

গ. মাইকেল কোস্টারলিৎজ তত্ত্বের মাধ্যমে পদার্থের টপোলজিক্যাল অবস্থার সন্ধান দিয়েছেন। তাঁদের এই গবেষণার ফলে ইলেক্ট্রনিকসে নতুন সম্ভাবনার আশা তৈরি হয়েছে।

৪। রসায়ন

ক. জ্যঁ পিয়েরে সোভাজ,(ফ্রান্স)

খ.ফ্রেজার স্টুডার্ট , যুক্তরাজ্য

গ.বার্নার্ড এল. ফেরিঙ্গার (নেদারল্যান্ডস) মলিকিউলার মেশিন বা ন্যানোমেশিন উদ্ভাবনের গবেষণার স্বীকৃতি হিসেবে তিন বিজ্ঞানী এবার রসায়নের নোবেল জিতে নিয়েছেন।

৫। অর্থনীতি

যুক্তরাজ্যের বংশোদ্ভূত অলিভারহার্ট ও ফিনল্যান্ডের বংশোদ্ভূত বেংগত হোলমস্টরম।

কন্ট্রাক্ট থিউরিতে অবদানের জন্য এই দুই অর্থনীতিবিদকে নোবেল দেয়া হয়।

৬। সাহিত্য .

প্রখ্যাত মার্কিন সংগীত শিল্পী ও গীতিকার ‘বব ডিলান’। মার্কিন সংগীত ঐতিহ্যে নতুন কাব্যিক ধারা সৃষ্টির স্বীকৃতি হিসেবে তাকে এই পুরস্কার দেয়া হয়।

নোবেল পুরস্কার ঘোষণাকারী প্রতিষ্ঠান চিকিৎসা বিজ্ঞানে = সুইডেনের ক্যারোলিনস্কা ইনস্টিটিউট।

সাহিত্যে = সুইডিস একাডেমী।

পদার্থ, রসায়ন ও অর্থনীতি = রয়েল সুইডিস একাডেমী অব সায়েন্সস।

শান্তির ক্ষেত্রে = নোবেল কমিটি অব নরওয়েজিয়ান পার্লামেন্ট।

একটি বিষয়ে সর্বোচ্চ কতজন নোবেল পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত হতে পারে? ৩ জন।

নোবেল কোন পুরস্কারের জন্য ব্যক্তির পাশাপাশি প্রতিষ্ঠানকে বিবেচনা হয়?

= শান্তিতে

★ সাম্প্রতিক কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স এর টুকিটাকি – ব্যাংক, বিসিএস ও অন্যান্য জবের জন্য

১। ২০১৬ সালের ICT উন্নয়ন সূচকে শীর্ষ দেশ –দক্ষিণ কোরিয়া

২। ২০১৬ সালের ICT উন্নয়ন সূচকে সর্বনিম্ন দেশ – শাদ

৩। ২০১৬ সালের ICT উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ১৪৪ তম

৪। ২০১৬ সালের সুখী দেশের তালিকায় সবচেয়ে সুখী দেশ- কোস্টারিকা

৫। ২০১৬ সালের সুখী দেশের তালিকায় সবচেয়ে অসুখী দেশ- শাদ

৬। ২০১৬ সালের সুখী দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ৮ম

৭।২০১৬ সালের বৈশ্বিক উদ্ভাবন সূচকে শীর্ষ দেশ – সুইজারল্যান্ড

৮।২০১৬ সালের বৈশ্বিক উদ্ভাবন সূচকে সর্বনিম্ন দেশ – ইয়েমেন

৯। ২০১৬ সালের বৈশ্বিক উদ্ভাবন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান -১১৭ তম

১০। রিও অলিম্পিকে দ্রুততম মানবী কে? – এলেইন থম্পসন ( জ্যামাইকা)

১১। অমিম্পিকের ইতিহাসে সর্বোচ্চ সংখ্যক পদক(২৮টি) জয়ী কে?- মাইকেল ফেল্পস

১২।অলিম্পিকে মাইকেল ফেল্পস কতটি স্বর্ণপদক জয় করেন?- ২৩ টি

১৩। অলিম্পিকের ইতিহাসে ব্যক্তিগত ইভেন্টে সর্বোচ্চ সংখ্যক (১৩টি) পদক জয়ী কে?- মাইকেল ফেল্পস

১৪। রিও অলিম্পিকের প্রথম স্বর্ণপদক জয়ী কে?- ভার্জিনিয়া থারেসা ( যুক্তরাষ্ট্র)

১৫। অলিম্পিক ইতিহাসে সবচেয়ে বেশী বয়সে স্বর্ণজয়ী সাঁতারু কে ? – অ্যান্থনি ইরভিন

১৬। ১১৮ তম মৌলের নাম কি?- অগ্যানিসন (Og)

১৭। বিশ্বের আবিষ্কৃত এবং স্বীকৃত মৌল বা মৌলিক পদার্থের সংখ্যা কত?- ১১৮ টি

১৮। “From Rebel to Founding Father:Sheikh Mujibur Rahman” গ্রন্থটির রচয়িতা কে?- সৈয়দ বদরুল আহসান

২০।অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থা (OECD) এর বর্তমান সদস্যসংখ্যা- ৩৫টি ( ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ এর তথ্য মতে)

২১। অর্থনৈতিক সহযোগিতা সংস্থা (OECD) এর ৩৫তম সদস্যপদ প্রাপ্ত দেশ কোনটি- লাটভিয়া

২২। দেশের প্রথম আট (৮)লেনের মহাসড়ক কোনটি? – যাত্রাবাড়ি- কাঁচপুর

২৩।দেশের প্রথম আট (৮) লেনের মহাসড়কের দৈর্ঘ্য -৭.৫ (কিঃমিঃ) প্রায়

২৪। দেশের প্রথম চার (৪) লেন এক্সপ্রেস ওয়ের দৈর্ঘ্য -৫৫ কিঃমিঃ

২৫। বাংলাদেশ ঔষধ রপ্তানী শুরু করে- ১৯৯২ সালে

২৬। বর্তমানে সর্বাধিক ঔষধ রপ্তানী হয়- মিয়ানমার

২৭। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA ) এরকার্যালয় কোথায়-ঢাকা

২৮। বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (BIDA ) এর চেয়ারম্যান – প্রধানমন্ত্রী

২৯।যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম ঔষধ রপ্তানী শুরু করে – বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিঃ

৩০।মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক উপন্যাস “শ্বেতপদ্ম” গ্রন্থটির রচয়িতা কে?- তাবারক হোসেন

৩১। বর্তমানে আফ্রিকা মহাদেশের বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ কোনটি -( ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ এর তথ্য মতে)-দক্ষিণ আফ্রিকা

৩২। ২০২০ সালে ৩২ তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক অনুষ্ঠিত হবে জাপানের রাজধানী টোকিওতে

৩২। “বাংলার বাঘিনী” নামে খ্যাত মার্গারিটা মামুনের পৈতৃক বাড়ি রাজশাহী জেলায়

৩২। মার্গারিটা মামুন স্বর্ণ জয় করেন রিদমিক জিমন্যাস্টিকে

৩৩। বাংলাদেশের তৃতীয় বাণিজ্যিক সমুদ্রবন্দর পায়রা – যাত্রা শুরু করে ১৩ আগস্ট ২০১৬ তে

৩৪। সরকারি ও বেসরকার অংশীদারিত্ব (PPP) দেশের প্রথম বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন হচ্ছে সিরাজগঞ্জে, এটি দ্বৈত জ্বালানীতে চালিত (গ্যাস ও ডিজেল)

সাম্প্রতিক তথ্য

১। ৩ অক্টোবর ২০১৬ নোবেল পুরস্কার ঘোষিত “ফিজিওলজি ও মেডিসিন”এ পদক প্রাপ্ত বিজ্ঞানীর নাম… ==ইয়োশিনোরি ওশুমি। অটোফ্যাগির মেকানিজম আবিষ্কারের জন্য পেয়েছেন এ স্বীকৃতি।

২। সম্প্রতি বাংলাদেশের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় জাতীয় দুর্যোগ হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে- =বজ্রপাতকে

(বাংলাদেশ মোট ১৩টি)

৩। EU থেকে বৃটেনের বেরিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে (‘ব্রেক্সিট’) জনগণের রায় নিতে সেদেশে গণভোট অনুষ্ঠিত হয় — =২৩ জুন, ২০১৬

৪। WHO এর মতে, বিশ্বের সবচেয়ে দূষিত শহর কোনটি? =ইরানের জাবল

৫। লিঙ্গ সমতা ও নারীর ক্ষমতায়নে জাতিসংঘ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি কোন পুরস্কার পান? প্লানেট ফিফটি-ফিফটি ও এজেন্ট অফ চেঞ্জ পুরস্কার লাভ।

উল্লেখ্য , বাংলাদেশি আরেকজন গবেষক ও ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষক শাহরিয়ার আহমেদ জাতিসংঘের মোমেন্টাম অফ চেঞ্জ এ্যাওয়ার্ড পেয়েছে। তার উদ্ভাবিত প্রযুক্তি স্মার্ট ভিলেজ ন্যানোগ্রিড। গত বছর এই প্রযুক্তির জন্য তাকে জার্মানীর সোলার এ্যাওয়ার্ডও প্রদান করা হয়।

৬। সার্জিকেল স্ট্রাইক কী? সার্জিকেল স্ট্রাইক হচ্ছে আগে থেকে নির্ধারণ করে নির্দিষ্ট ভূ-খণ্ডে বা স্থাপনায় আকস্মিক ঘোষণা করে খুব দ্রুততার সহিত ফিরে আসা। এই অভিযানের উদ্দেশ্য হচ্ছে কোন স্থাপনা পুরোপুরি ধ্বংস করে দেওয়া। কাউকে গ্রেফতার বা আটকের জন্য এই অভিযান পরিচালিত হয় না আর কোন ভূ-খণ্ডে আভিযান পরিচালনা করে সেটা দখল থাকা এটাও এই পরিচালনায় করা হয় না। সম্প্রতি পাকিস্তানে পরিচালিত ভারতের কমান্ডো বাহিনীর আকস্মিক অভিযান। এর আগে জঙ্গী দমনের জন্য মায়ানমারেও এই ধরনের অভিযান চালানো হয়।

৭। থাড কী ? ==এটি হচ্ছে ক্ষেপনাস্ত্র দ্বারা একধরনের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা। সম্প্রতি পঞ্চমবারের মত উত্তর কোরিয়ার পারমানবিক বোমা পরীক্ষার পর দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট যৌথভাবে এই ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

৮। স্মার্ট ভিলেজ ন্যানোগ্রিড কী? ==বাসাবাড়িতে সৌরবিদ্যুৎ ব্যবহারের পর অতিরিক্ত বিদ্যুৎ এক বাসা থেকে অন্য বাসায় ট্রান্সফারের প্রযুক্তি হচ্ছে স্মার্ট ভিলেজ ন্যানোগ্রিড।

৯। অতিদারিদ্র্য কমে ১২.৯ শতাংশ: বিশ্ব ব্যাংক =

১০। জাতীয় পরিচয়পত্র (স্মার্ট কার্ড) বিতরণ করা হয় — 2 অক্টোবর 2016 সর্বপ্রথম স্মার্ট কার্ড দেওয়া হয়—

প্রথমে — রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

দ্বিতীয় — প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

তৃতীয় — মাশরাফি বিন মর্তুজা

সাম্প্রতিক তথ্য : ২০১৬ ও ২০১৫

‘ অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৬’

মোট জনসংখ্যা = ১৫.৯৯কোটি মনে হয়

জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার = 1. 37 (১.৩৬ – বিশ্ব ব্যাংক )

১। মানব উন্নয়ন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান = ১৪২

২। জিডিপি প্রবৃদ্ধি হার > ৭.০৫%(২০১৬-১৭ বছরে প্রক্ষেপন ৭.২%)

৩। মাথাপিছু আয় > ১৪৬৬ মার্কিন ডলার

৪। দারিদ্র্যের হার > ২৪. ৮% । অতিদ্রারিদ্রের হার > ১২.৮%

৫। পদ্মাসেতু নির্মাণে ব্যয় > ২৮,৭৯৩.৩৯ কোটি টাকা ।

৬। জিডিপি আকার > ১৭,২৯,৫৬৭কোটি টাকা

৭।চলতি বাজার মূল্যে মাথাপিছু জিডিপির পরিমাণ১,০৮,১৭২ টাক

৮।স্থির মূল্যে জিডিপিতে

শিল্পখাতের অবদান >> ৩১.২৮%

সেবা খাতের অবদান >>৫৩.৩৯%

কৃষি খাতের অবদান > ১৫.৩৩%

৯। জাতীয় সঞ্চয় হার > ৩০.০৮%

১০। বিনিয়োগ জিডিপির > ২৯.৩৮%

১১। খাদ্যশষ্য উত্পাদন > ৩৮৯.৯৭ লক্ষ মেট্রিক টন

১২। দেশের মোট জনগণের শতকরা ৭৫ভাগ বিদ্যু সুবিধা পাচ্ছে।

১৩। বিদ্যুত উত্পাদন ক্ষমতা > ১২,৩৩৯ মেগা ওয়াট ।

১৪।আবিষ্কৃত গ্যাস ক্ষেত্র > ২৬টি । মোট মজুদ ৩৮.০২ ট্রিলিয়ন ঘনফুট । তবে উত্তোলন যোগ্য ২৭.১২ ট্রিলিয়ন ঘনফুট । জ্বালানি তেলের মজুদ > ১০.৯১ লক্ষ মেট্রিক টন।

১৫। গড় মূদ্রাস্ফীতির হার > ৬.০১%। এপ্রিল ২০১৬ > ৫.৬১%

১৬। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ > ২৯.১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ।

Part -2

১। জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার প্রক্ষেপন ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে >> ৭.২% ২০১৭-১৮ >> ৭.৪% ২০১৮-১৯ >>৭.৬%

নোট > বিগত ৬ বছরে( ২০০৯-১০ থেকে ২০১৪-১৫) জিডিপির

গড় প্রবৃদ্ধি ৬.২%

======

২। রপ্তানি আয় > ২৭,৬৩৭.২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার

৩। আমদানি ব্যয় > ৩১,৩৩৫.৮ মিলিয়ন মার্কিন ডলার

৪। রেমিট্যান্স > ১২,২৫৫.২৯মিলিয়ন মার্কিন ডলার

৫। জনশক্তি রপ্তানি > ৫.৬২ লক্ষ জন।

৬। বৈদেশিক বাণিজ্য > ২৯৩৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার

৭। দেশে রাষ্ট্রায়াত্ব প্রতিষ্ঠান > ৪৫টি ।

৮। জলবায়ু তহবিলে বরাদ্দ টাকার পরিমাণ ৩, ০০০ কোটি টাকা।

৯। দেশে বর্তমানে প্রাথমিক স্কুলের সংখ্যা > ১, ১২, ১৭৬টি ( ব্র্যাক সেন্টার, মাদ্রাসা, শিশু কল্যাণ সহ)

১০। প্রাথমিকে ভর্তি হার >> ৯৭.৯% ( ছেলে: মেয়ে = ৪৯.১৪%: ৫০. ৮৬%)

১১। প্রাথমিকে ঝড়ে পড়ার হার >> ২০.৪%

১২। দেশে বর্তমানে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের সংখ্যা > ৩৮টি।

১৩। দেশে বর্তমানে মেডিক্যাল কলেজের সংখ্যা >> ৩৬টি

১৪। দেশে বর্তমানে কমিউনিটি ক্লিনিকের সংখ্যা >> ১৩, ১৩৬টি।

১৫। স্থুল জন্মহার (প্রতি হাজারে ) > ১৮.২ ( জাতীয়)

১৬। স্থুল মৃত্যুহার (প্রতি হাজারে ) > ৫.২ জন ( জাতীয়)

১৭। প্রত্যাশিত গড় আয়ু >৭০.৭ বছর(জাতীয় )পুরুষ ৬৯.১বছর নারী ৭১.৬বছর

১৮। জন প্রতি ডাক্তারের সংখ্যা >> ২১২৯ জন।

১৯। বিবাহের গড় বয়স >> পুরুষ ২৪.৯ বছর নারী ১৮.৩বছর

২০। শিশু মৃত্যু হার ( ১ বছরের কম প্রতি হাজারে ) > ৩০জন

২১। শিশু মৃত্যু হার ( ৫ বছরের কম প্রতি হাজারে ) > ৩৮জন

২২। মাতৃমৃত্যুহার >> ১.৯৩% (জাতীয় )

২৩। গর্ভনিরোধ ব্যবহার কারী > ৬২.২%

২৪। উর্বরতার হার ( মহিলা প্রতি ) >> ২.১১

২৫। দেশে আগামী ১৫বছরে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার করা উদ্যোগে এখন পর্যন্ত ৫৬টির ( এপ্রিল ২০১৬ ) ( সরকারী ৪২ ও বেসরকারী ১৪) টির অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১১টি উদ্বোধন করা হয়েছে।

উপজেলা=৪৯০, সর্বশেষ ( কর্ণফুলী, চট্টগ্রাম)

থানা=৬৩৯ ,সর্বশেষ পটুয়াখালীর মহীপুর

পৌরসভা=৩২৬ ,সর্বশেষ , ফরীদপুরের আলফাডাঙ্গা।

ইউনিয়ন=৪৫৬২( জাতীয় তথ্য বাতায়ন) । নীকার >> ৪৫৩৬।

জেলা=৬৪

বিভাগ=৮ ,সর্বশেষ ময়মনসিংহ ।দেশের ক্ষুদ্রতম বিভাগ – ময়মনসিংহ। মোট জেলা > ৪টি।

সিটি করপোরেশন = ১২, সর্বশেষ ময়মনসিংহ

গ্রাম=৮৭৩৭২

স্থল বন্দর >> ২৩। সর্বশেষ > বাল্লা।

গ্যাসক্ষেত্র –২৬টি (সর্বশেষ—রূপসা নারায়ণগঞ্জ)

বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় >> ১৪৬৬ মার্কিন ডলার

( অর্থনৈতিক সমীক্ষা-২০১৬’ । ১১৯০ মার্কিন ডলার >

বিশ্ব ব্যাংক

===

বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থানঃ

১. মানব সূচক উন্নয়নে বাংলাদেশের অবস্থান কত?>> ১৪২।

২ জনসংখ্যায় বিশ্বে > ৮ম

৩. জনসংখ্যার দিক থেকে এশিয়ার – পঞ্চম

৪ জনসংখ্যার দিক থেকে দক্ষিণ এশিয়ায় – তৃতীয়

৫ জনসংখ্যার দিক থেকে মুসলিম বিশ্বে – চতুর্থ (১ম ইন্দোনেশিয়া)

৬,আয়তনে সার্ক দেশগুলোর মধ্যে – চতুর্থ।(১ম ভারত)

৭. ধান উৎপাদনে – চতুর্থ। (১ম চীন)

৮. পাট উৎপাদনে – ২য় । (১ম ভারত)

৯.পাট রপ্তানিতে – ১ম ।

১০. চা উৎপাদনে -চতুর্থ। (১ম চীন)

১১. মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে বিশ্বে -চতুর্থ।

১২. আলু উৎপাদনে – ৮ম।

১৩, সবজি উৎপাদনে>>৩য়।

১৪। পোশাক রপ্তানতে > ২য়।

১৫। রেমিট্যান্স প্রাপ্তিতে > ৮ম

১৬। শান্তি রক্ষায় সেনা প্রদানে > ১ম ।

১৭. বিশ্ব ইন্টারনেট সূচকে -৬৩তম

১৮.টেস্ট ক্রিকেটে>>৯ম

১৯. ওয়ানডে ক্রিকেটে> ৭ম।

২০.বাংলাদেশ বিশ্বের ১১০তম সুখী দেশ। শীর্ষ দেশ ডেনমার্ক

২১. গণতন্ত্র সূচকে > ৮৬। ভালো দেশের সূচকে > ১১৭। মাথাপিছু আয়ের দিক থেকে > ১৮৩।

২২। বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি আমদানি করে চীন থেকে। মোট আমদানির ৩১.৮%

২৩। বাংলাদেশ সবচেয়ে বেশি রপ্তানি করে যুক্তরাষ্ট্রে । মোট রপ্তানির ১৬.১%।

২৪। বাংলাদেশে বিনিয়োগে শীর্ষ দেশ > যুক্তরাজ্য

২৫। বিশ্বে বিনিয়োগে শীর্ষ দেশ>> চীন বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তি

১) বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তি বিল পাস হয়ঃ

– ৬ মে ২০১৫ (রাজ্যসভায়)

– ৭ মে ২০১৫ (লোকসভায়)

২) ভুল শুধরে আবার পাশ হয় ১১মে ২০১৫। ১০০তম সংশোধনী ছিল কিন্তু ১১৯তম হবে।

৩) বাংলাদেশের মন্ত্রিসভায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত চুক্তি অনুসমর্থনের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়- ২৫ মে ২০১৫

৪) স্থল সীমান্ত চুক্তি-১৯৭৪ ও ২০১১ সালের প্রটোকল অনুমোদনের দলিল বিনিময় হয় ৬জুন, ২০১৫।

৫) আনুষ্ঠানিকভাবে কার্যকর- ৩১ জুলাই ২০১৫।ছিটমহল বিনিময় কার্যকর হয় – ১ আগস্ট ,২০১৫।

৬) বাংলাদেশ-ভারত স্থল সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল- ১৬ মে ১৯৭৪।

৭) বাংলাদেশের ভেতর ভারতের ১১১টি ছিট মহলের আয়তন- ১৭,১৫৮ একর।

৮) ভারতের ভেতর বাংলাদেশের ৫১টি ছিট মহলের আয়তন- ৭,১১০ একর।

৯) ৩১ জুলাই ২০১৫ মধ্যরাতে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্য আনুষ্ঠানিকভাবে ছিটমহল বিনিময়ের মাধ্যমে উভয় দেশের মানচিত্র থেকে ছিটমহল নামের শব্দটি উঠে যায়।

১০) অচিহ্নিত সীমানা ৬.৫ কি.মি।

১১) সীমান্তের মধ্যে চিহ্নিত সীমান্ত ৪.৫ কি.মি।

১২) অচিহ্নিত রয়ে গেছে বিলোনিয়া সেক্টরে মুহুরীর চরের শুধু ২কি.মি সীমানা।

১৩) অপদখলীয় জমি ৫০৪৪.৭২ একর।

১৪) বাংলাদেশ পায় ৬টি স্থানে ২২৬৭. ৬৮২ একর।

১৫) ভারত পায় ১২টি স্থানে ২৭৭৭.০৩৮ একর।

১৬) মুজিব-ইন্দিরা চুক্তি (স্থল সীমান্ত চুক্তি) স্বাক্ষরিত হয় ১৬ মে, ১৯৭৪।

১৭) বাংলাদেশে সংসদে পাশ হয় ২৩ নভেম্বর ১৯৭৪। (সংবিধানের ৩য় সংশোধনী) নিন্ম মধ্যম আয়ের দেশ এখন বাংলাদেশ (১ জুলাই ২০১৫) বিশ্ব ব্যাংকের ৪ ভাগ

১। নিন্ম আয়ের >> ১০২৫ মার্কিন ডলার

২। নিন্ম মধ্যম আয়ের >> ১০২৬- ৪০৩৫মার্কিন ডলার

৩। উচ্চ মধ্যম আয়ের >> ৪০৩৬- ১২, ৪৭৫মার্কিন ডলার

৪। উচ্চ আয়ের >> ১২, ৪৭৬ >মার্কিন ডলার

বাংলাদেশ মিয়ানমার সমুদ্রসীমা বিরোধ মামলার রায় হয় ১৪ মার্চ ২০১২,(ITLOS)

বাংলাদেশ ভারত সমুদ্রসীমা বিরোধ মামলার রায় হয় ৭ জুলাই ২০১৪,(PCA)

***বর্তমানে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা ১,১৮,৮১৩ বর্গ কি মি,

***অর্থনৈতিক অঞ্চল ২০০নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত. মহী সোপানে ৩৫৪ নটিক্যাল মাইল পর্যন্ত.।

২০১৫ সালের বিশ্ব খাদ্য পুরুস্কার লাভ যে বাংলাদেশি – স্যার ফজলে হাসান আবেদ ।

রাষ্ট্রীয় বনভূমি আছে >> ৩৫জেলায়

রাষ্ট্রীয় বনভূমি নেই>>২৯ জেলায়।

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু কবে আঘাত হানে > ২১মে ২০১৬। রোয়ানু

মালদ্বপের দেভেহী ভাষার শব্দ । অর্থ > নারকেলের ছোড়বা।

সম্প্রত কোন দেশে বঙ্গবন্ধু চেয়ার প্রফেসরসপ চালু করা হয়েছে > থাইল্যাণ্ড । AIT.

সম্প্রতি কোথায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মোমের মূর্তি স্থাপন করা হয় ? –কলকাতার ওয়াক্স মিউজিয়ামে।

‘জনকের মুখ‘ কী? – বঙ্গবন্ধুককে নিয়ে লেখা ৫৫টি ছোট গল্পের সংকলন । সম্পাদনা করেছেন আখতার হুসেন। দেশের ৩৫তম সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় কোথায় প্রতিষ্ঠিত হবে মূল ক্যাম্পাস সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর তবে পতিসর এবং শিলাইদহে পৃথক দুটি ক্যাম্পাস তৈরি করা হবে ।

বাংলাদেশের ১ম কৃত্রিম উপগ্রহ কোনটি? –বঙ্গবন্ধু স্যাটেল্যাইট (উতক্ষেপণ করা হবে ২০১৭সালের ১৬ডি: )। এজন্য ১১৯.১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশ কক্ষপথ ভাড়া নেওয়া হয়। গাজীপুরের জয়দেব পুর, রাঙামাটির বেতবুনিয়ায় এটির দুটি গ্রাউন্ড স্টেশন স্থাপন করা হবে।মো্ট ব্যয় হবে ২৯৬৭কোটি টাকা । পৃথিবীতে বর্তমানে ৫৭টি আছে।

ঢাকার মেট্রোরেলের দৈর্ঘ্য >> ২০.১ কি.মি.

অভিষেক ওয়ানডে ও টেস্টে ম্যান অব দ্যা ম্যাচ হওয়া একমাত্র ক্রিকেটার কে? – মোস্তাফিজুর রহমান

প্রশ্ন :বাংলাদেশে মান সময় চালু হয় কখন?

উত্তর :৮ মে ২০১৪।

প্রশ্ন :বাংলাদেশের বিজ্ঞানীরা প্রথমবারের মতো

কোন প্রাণীর ‘জীবনরহস্য’ উন্মোচন করেছেন?-

উত্তর :মহিষ।

প্রশ্ন :২ মার্চ ২০১৪ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম নারী হিসেবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিযুক্ত হন কে?

উত্তর : অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম।

প্রশ্ন :দেশের কোথায় প্রথম হাইটেক পার্ক নির্মিত হবে?-

উত্তর :কালিয়াকৈর, গাজীপুর।

প্রশ্ন :বাংলাদেশের ২১তম এবং বর্তমান প্রধান বিচারপতি কে?

উত্তর :বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা

download-pdf

Direct Download 

Click Here

👀 প্রয়োজনীয় মূর্হুতে 🔍খুঁজে পেতে শেয়ার করে রাখুন.! আপনার প্রিয় মানুষটিকে “send as message”এর মাধ্যমে শেয়ার করুন। হয়তো এই গুলো তার অনেক কাজে লাগবে এবং উপকারে আসবে।