মাধ্যমিক বাংলা বহুরূপী–সুবোধ ঘোষ–গল্প পিডিএফ ডাউনলোড

0
145

মাধ্যমিক বাংলা বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

পিডিএফ ডাউনলোড

বহুবিকল্পীয় প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করা

১. ‘বহুরূপী’ গল্পটি কে লিখেছেন?

(ক) সুবোধ ঘোষ (খ) শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (গ) তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায় (ঘ) বনফুল মুখোপাধ্যায়

Answer : (ক) সুবোধ ঘোষ

২. গল্পকথক ও তার সঙ্গীরা কার কাছে গল্প করেছিল?

(ক) হরিদার কাছে (খ) নবদার কাছে (গ) দেবুদার কাছে (ঘ) বুড়োদার কাছে

Answer : (ক) হরিদার কাছে

৩. জগদীশবাবুর বাড়িতে সন্ন্যাসী কতদিন ছিলেন ?

(ক) সাতদিন (খ) পাঁচদিন (গ) আটদিন (ঘ) চারদিন

Answer : (ক) সাতদিন

৪. সারা বছরে সন্ন্যাসী শুধু একটি কী খান?

(ক) সুপারি (খ) হরীতকী (গ) নারকেল (ঘ) আপেল

Answer : (খ) হরীতকী

৫. সন্ন্যাসীর পায়ের ধুলো কে পেয়েছিলেন?

(ক) রামবাবু (খ) শ্যামবাবু (গ) জগদীশবাবু (ঘ) শ্যামলবাবু

Answer : (গ) জগদীশবাবু

৬. জগদীশবাবু সন্ন্যাসীকে কী দিয়েছিলেন?

(ক) একটি আসন (খ) একটি চামর (গ) একটি কমণ্ডলু (ঘ) একজোড়া কাঠের খড়ম

Answer : (ঘ) একজোড়া কাঠের খড়ম

৭. সন্ন্যাসীকে বিদায় দেওয়ার সময় জগদীশবাবু তাঁর ঝোলার মধ্যে কত টাকা ফেলে দিলেন?

(ক) একশো টাকা (খ) দুশো টাকা (গ) তিনশো টাকা (ঘ) চারশো টাকা

Answer : (ক) একশো টাকা

৮. হরিদার পেশা কী ছিল?

(ক) পট খেলানো (খ) বহুরূপী সাজা (গ) যাত্রা করা (ঘ) গান করা

Answer : (খ) বহুরূপী সাজা

৯. হরিদা চকের বাসস্ট্যান্ডে কোন্ সময়ে পাগল সেজেছিল?

(ক) সকালবেলায় (খ) বিকালবেলায় (গ) দুপুরবেলায় (ঘ) সন্ধ্যাবেলায়

Answer : (গ) দুপুরবেলায়

১০. হরিদা যিনি পাগল সেজেছিলেন, তার গলায় কীসের মালা ছিল?

(ক) ফুলের মালা (খ) কাগজের মালা (গ) হাড়ের মালা (ঘ) টিনের কৌটোর মালা

Answer : (ঘ) টিনের কৌটোর মালা

১১. হরিদা কী সাজ দেখিয়ে সবচেয়ে বেশি পয়সা পেয়েছিলেন ?

(ক) রূপসি বাইজি (খ) হনুমান (গ) রাক্ষস (ঘ) দেবী কালী

Answer : (ক) রূপসি বাইজি

১২. স্কুলের মাস্টারমশাই হরিদাকে কত ঘুষ দিয়েছিলেন?

(ক) পাচ আনা (খ) আট আনা (গ) সাত আনা (ঘ) চার আনা

Answer : (খ) আট আনা

১৩. সপ্তাহে কত দিন হরিদা বহুরূপী সেজে পথে বের হন?

(ক) দু-দিন (খ) তিনদিন (গ) একদিন (ঘ) চারদিন

Answer : (গ) একদিন

১৪. হরিদা জগদীশবাবুর বাড়ি গিয়ে ঝোলা থেকে কী বের করেছিলেন?

(ক) রামায়ণ (খ) মহাভারত (গ) উপনিষদ (ঘ) গীতা

Answer : (ঘ) গীতা

১৫. জগদীশবাবু হরিদাকে তীর্থ ভ্রমণের প্রণামী হিসেবে কত টাকা দিয়ে চেয়েছিলেন?

(ক) একশো এক টাকা (খ) দুশো টাকা (গ) পঞ্চাশ টাকা (ঘ) আড়াইশো টাকা

Answer : (ক) একশো এক টাকা

অতিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

১. জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসীর গুণাগুণ শুনে হরিদা আক্ষেপ করে কী বলেছেন?

Answer : জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসী সম্পর্কে হরিদা আক্ষেপ করে বলেছেন—“থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নিতাম।”

২. সন্ন্যাসীর ভয়ানক দুর্লভ জিনিসটা কী?

Answer : সন্ন্যাসীর ভয়ানক দুর্লভ জিনিসটি হল সন্ন্যাসীর পায়ের ধুলো, যেটা জগদীশবাবু ছাড়া আর কেউ পাননি।

৩. জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসী কোথায় থাকেন?

Answer : গল্পকার সুবোধ ঘোষের লেখা বহুরূপী’ গল্পে জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসী ছিলেন খুব উঁচু দরের সন্ন্যাসী। তিনি হিমালয়ের গুহাতে থাকেন।

৪. সন্ন্যাসীর বয়স কত হবে?

Answer : জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসীর বয়স হাজার বছরের বেশি বলে অনেকেই মনে করেন।

৫. জগদীশবাবু কাঠের খড়মে কী লাগিয়েছিলেন?

Answer : জগদীশবাবু একজোড়া কাঠের খড়মে সোনার বোল লাগিয়ে সন্ন্যাসীর পায়ের কাছে ধরেন।

৬. জগদীশবাবু সন্ন্যাসীকে একশো টাকার একটা নোট জোর করে দিলে তিনি কী করেন?

Answer : জগদীশবাবু সন্ন্যাসীকে একশো টাকার একটা নোট জোর করে দিলে সন্ন্যাসী হাসলেন আর চলে গেলেন।

৭. হরিদা গম্ভীর হয়ে গেলেন কেন?

Answer : সুবোধ ঘোষের লেখা বহুরূপী’ গল্পে জগদীশবাবুর বাড়িতে আগত সন্ন্যাসীর গল্প শুনে হরিদা গম্ভীর হয়ে গেলেন।

৮. “ওই ধরনের কাজ হরিদার জীবনের পছন্দই নয়।”—কোন্ ধরনের কাজ হরিদার পছন্দ নয়?

Answer : অফিস বা দোকানের বাঁধাধরা গতানুগতিক কাজ হরিদার জীবনের পছন্দই নয়।

৯. “হরিদার জীবনে সত্যিই একটা নাটকীয় বৈচিত্র্য আছে।”—এই নাটকীয় বৈচিত্র্য কী?

Answer : হরিদা মাঝে মাঝে বহুরূপী সেজে রোজগার করেন এবং তাতে আহারের সংস্থান হয়। এটাই হরিদার জীবনের একটি নাটকীয় বৈচিত্র্য।

১০. হরিদা কোথায় পাগল সেজেছিলেন?

Answer : সুবোধ ঘোষের লেখা ‘বহুরূপী’ গল্পে হরিদা চকের বাসস্ট্যান্ডের কাছে পাগল সেজেছিলেন।

১১. “একটা আতঙ্কের হল্লা বেজে উঠেছিল।”—কোথায়, কখন আতঙ্কের হল্লা বেজে ওঠে?

Answer : একদিন চকের বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঠিক দুপুরবেলা একটা আতঙ্কের হল্লা বেজে উঠেছিল।

১২. বাসের ড্রাইভার কাশীনাথ পাগল সেজে থাকা হরিদাকে কী বলেছে?

Answer : বাসের ড্রাইভার কাশীনাথ পাগল সেজে থাকা হরিদাকে বলেছিল- “খুব হয়েছে হরি, এইবার সরে পড়ো। অন্যদিকে যাও।”

১৩. হরিদা রূপসি বাইজি সেজে কত টাকা পেয়েছিলেন?

Answer : হরিদার রূপসি বাইজি সেজে রাস্তায় বের হয়ে রোজগার খারাপ হয়নি। তিনি মোট আট টাকা দশ আনা পেয়েছিলেন।

১৪. হরিদা কী কী সাজে বহুরূপী হন?

Answer : হরিদা কোনোদিন বাউল, কোনোদিন কাপালিক, কোনোদিন কাবুলিওয়ালা, কোনোদিন সাহেব ও কোনোদিন পুলিশ সেজে বহুরূপী হন।

১৫. হরিদা পুলিশ সেজে কোথায় দাঁড়িয়েছিলেন?

Answer : সুবোধ ঘোষের লেখা ‘বহুরূপী’ গল্পে হরিদা পুলিশ সেজে দয়ালবাবুর লিচু বাগানের ভিতরে দাঁড়িয়েছিলেন।

১৬. জগদীশবাবুর বাড়িতে খেলা দেখাবার জন্য হরিদার এত উৎসাহ জেগেছিল কেন?

Answer : মোটা মতন কিছু আদায় করে নেওয়ার জন্য জগদীশবাবুর বাড়িতে খেলা দেখানোয় হরিদার এত উৎসাহ জেগেছিল।

১৭. জগদীশবাবু কেমন মানুষ?

Answer : সুবোধ ঘোষের লেখা ‘বহুরূপী’ গল্পে জগদীশবাবু ধনী মানুষ বটে, কিন্তু বেশ কৃপণ মানুষ।

১৮. জগদীশবাবুর বাড়িতে সন্ধ্যার সময় গল্পকথক ও তার সঙ্গীরা কী করতে হাজির হয়েছিল?

Answer : জগদীশবাবুর বাড়িতে সন্ধ্যার সময় গল্পকথক ও তার সঙ্গীরা স্পোর্টসের চাঁদা নেওয়ার জন্য হাজির হয়েছিল।

১৯. জগদীশবাবুর বাড়িতে হরিদার পোশাক কেমন ছিল?

Answer : জগদীশবাবুর বাড়িতে হরিদার খালি গা, তার ওপর একটি ধবধবে সাদা উত্তরীয় এবং পরনে ছোটো বহরের একটা সাদা থান ছিল।

২০. জগদীশবাবুর বাড়িতে হরিদা কী খেয়েছিলেন?

Answer : জগদীশবাবুর বাড়িতে হরিদা শুধুমাত্র ঠান্ডা জল খেয়েছিলেন।

২১. জগদীশবাবুর কাছে হরিদা বকশিশ চাইলে তিনি কত দিতে পারেন?

Answer : জগদীশবাবুর কাছ থেকে হরিদা বকশিশ চাইলে তিনি বড়োজোর আট আনা কিংবা দশ আনা দিতে পারেন।

২২. “খুব চমৎকার পাগল সাজতে পেরেছে তো লোকটা।”-কারা, কখন এমন ভাবনা ভাবেন ?

Answer : বাসের ড্রাইভার কাশীনাথ হরিকে ধমক দিয়ে সরে যেতে বললে বাসের যাত্রীরা শুনে বিস্মিত হয়। আর তাতে পাগলের ছদ্মবেশধারী হরিদার প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে ওঠে। তখনই বাসযাত্রীরা এমন ভাবনা ভাবেন।

২৩. “এবার মারি তো হাতি, লুঠি তো তার।” এ কথা কে, কেন বলেছিলেন ?

Answer : ছদ্মবেশ ধরে বহুরূপী সেজে হরিদা এবার অনেক অর্থ উপার্জন করতে চান। তা ছাড়া অল্প আয়ে চলে না তাই সারাবছর চলে যাবে এমন ভেবে হরিদা এ কথা বলেন।

২৪. “বড়ো চমৎকার আজকে এই সন্ধ্যায় চেহারা।”—এ কথা ভাবার কারণ কী ?

Answer : আজকের মন্ত্রমুগ্ধ সন্ধ্যার চেহারা দেখে গল্পকথক বলেন যে, তাদের শহরের গায়ে কতদিন তো চাদের আলো পড়েছে কিন্তু কোনোদিন তো সেদিনের সন্ধ্যার মতো এমন একটা স্নিগ্ধ ও শান্ত উজ্জ্বলতা ফোটেনি—বক্তা তাই এমন ভেবেছেন।

২৫. “চমকে উঠলেন জগদীশবাবু।”—জগদীশবাবু চমকে উঠলেন কেন?

Answer : গল্পকথক ও তার সঙ্গীরা জগদীশবাবুর কাছে স্পোর্টসের চাঁদার খাতা নিয়ে হাজির হন। এসময় জগদীশবাবু বারান্দার সিঁড়ির দিকে তাকিয়ে ছোটো বহরের একটি সাদা থান পরা আগন্তুককে দেখে চমকে ওঠেন।

২৬. “আমরা সবাই হরিদার ঘরের ভিতর ঢুকলাম।”—ঘরে সবাই কী দেখেন?

Answer : ঘরে ঢুকে সবাই দেখেন—হরিদার উনানের আগুন তখন বেশ গনগনে হয়ে জ্বলছে। উনানের ওপর হাঁড়ির চাল ফুটছে। আর একটা বিড়ি ধরিয়ে নিয়ে হরিদা চুপ করে বসে আছেন।

ব্যাখ্যাভিত্তিক সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ৩) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

১. “শুনেছেন, হরিদা, কী কাণ্ড হয়েছে?”—কারা এ কথা বলেছে ? কাণ্ডটা কী ছিল ? ১+২

২. “গল্প শুনে খুব গম্ভীর হয়ে গেলেন হরিদা।”—হরিদা কে ছিলেন? তিনি কোন গল্প শুনে খুব গম্ভীর হয়ে গেলেন? ১+২

৩. “ওই ধরনের কাজ হরিদার জীবনের পছন্দই নয়।”—এ কথা বলার কারণ কী? তার পছন্দ কী? ২+১

৪. “সেটাই যে হরিদার জীবনের পেশা।”—হরিদার জীবনের পেশা কোনটি? কীভাবে তার জীবনযাপন হয় ? ১+২

৫. “খুব চমৎকার পাগল সাজতে পেরেছে তো লোকটা।”—এখানে কার সম্পর্কে কথাটি বলা হয়েছে? এ কথা বলার কারণ কী? ১+২

৬. হরিদা বহুরূপী সেজে পথে বের হলে কীভাবে তার অর্থ সংগ্রহ হয়?

৭. চকের বাসস্ট্যান্ডের কাছে হরিদা পাগল সেজে কী করছিল ?

৮. রূপসি বাইজি সেজে হরিদা পথচারীকে কীভাবে আকর্ষণ করেন?

৯. রূপসি বাইজি সেজে হরিদার কীভাবে রোজগার হয়?

১০. “সেদিন হরিদার রোজগার মন্দ হয়নি।”—কোন্ দিনের কথা বলা হয়েছে? সেদিন কীভাবে রোজগার হয়েছিল?

১১. যেদিন সন্ধ্যায় হরিদা জগদীশবাবুর বাড়ি গিয়েছিলেন, সেই সন্ধ্যায় প্রকৃতির রূপ কেমন ছিল?

১২. “এবারের মতো মাপ করে দিন ওদের।”—কে, কাকে এ কথা বলেছিলেন? এ কথা কেন বলেছিলেন? ১+২

১৩. “অনুরোধ রক্ষা করেছিলেন সেই নকল পুলিশ হরিদা।”—কার অনুরোধ রক্ষার কথা বলা হয়েছে? তিনি কী অনুরোধ, কেন করেছিলেন? ১+২

১৪. জগদীশবাবুহরিদার কাছে কিছু উপদেশ শুনতে চাইলে তিনি কী বলেছেন?

১৫. জগদীশবাবু হরিদার (বিরাগী) পায়ের কাছে একটি থলে রেখে কী বলেছেন?

১৬. “আমার এখানে কয়েকটি দিন থাকুন বিরাগীজি।”—উদ্ধৃতাংশের বক্তা কে? তিনি কখন, কীভাবে এই অনুরোধ করেন? ১+২

১৭. “আপনার তীর্থ ভ্রমণের জন্য এই টাকা আমি দিলাম।”—কে, কাকে এ কথা বলেছেন? কখন তিনি এ কথা বলেছেন? ১+২

১৮. “আমার বুকের ভেতরেই যে সব তীর্থ।”—কে, কাকে বলেছেন? বক্তা। _ কীভাবে বিত্তের প্রতি মোহকে তুচ্ছ করেছেন? ১+২

১৯. “এই বহুরূপীর জীবন এর বেশি কী আশা করতে পারে?”—বক্তা কে? কখন তিনি এ কথা বলেছেন? ১+২

রচনাধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ৫) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

১. ‘বহুরূপী’ গল্পের নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।

২. ‘বহুরূপী’ গল্পে হরিদার চরিত্রটি বিশ্লেষণ করো।

৩. ‘বহুরূপী’ গল্পে জগদীশবাবুর চরিত্রটি লেখো।

৪. বহুরূপী’ গল্পে অপ্রধান চরিত্রগুলি আলোচনা করো।

৫. “কিন্তু ওই ধরনের কাজ হরিদার জীবনের পছন্দই নয়।”—’ওই ধরনের কাজ’ বলতে কী ধরনের কাজের কথা বলা হয়েছে? কোন্ প্রসঙ্গে এই উক্তি ? কেন ওই ধরনের কাজ হরিদার পছন্দ নয়? ১+২+২

৬. “সে ভয়ানক দুর্লভ জিনিস।”—‘ভয়ানক দুর্লভ জিনিসটা কী? কে এই জিনিস পাওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়েছে? কোন্ প্রসঙ্গে এই কথা বলা হয়েছে? কথাটির তাৎপর্য লেখো। ১+১+১+২

৭. “হরিদার জীবনে সত্যিই একটা নাটকীয় বৈচিত্র্য আছে।”–‘নাটকীয় বৈচিত্র্য বলতে কী বোঝায়? সেটা কীরকম বৈচিত্র্যময়? এই নাটকীয় বৈচিত্র্যের একটি দৃষ্টান্ত দাও। ১+৩+১

৮. “খাঁটি মানুষ তো নয়, এই বহুরূপীর জীবন এর বেশি কী আশা করতে পারে?”—কে, কাকে এই কথা বলেছে? কোন্ প্রসঙ্গে বলেছে? বক্তব্যটির তাৎপর্য ব্যাখ্যা করো। ১+২+২

৯. “সন্ন্যাসীর গল্পটা শুনে কি হরিদার মাথার মধ্যে নতুন কোনো মতলব ছটফট করে উঠেছে?”–‘সন্ন্যাসীর গল্পটা’কী? কে বলেছে এই কথা? মতলবটা বর্ণনা করো। ২+১+২

১০. “এবার মারি তো হাতি, লুঠি তো ভাণ্ডার।”—এই কথাটিকে কী বলা হয়? কথাটিকে সংশোধন করলে কী দাঁড়াবে? কথাটি কে বলেছে? কথাটির অর্থ পরিস্ফুট করো। ১+১+১+২

১১. “তাতে যে আমার ঢং নষ্ট হয়ে যায়।”—কে, কাকে এই কথাটি বলেছে? কখন বলেছে? ঢং নষ্ট হয়ে যাওয়ার অর্থ কী? ১+২+২

১২. “কিন্তু সে কী করে সম্ভব?”—অসম্ভবটা কী? প্রসঙ্গ নির্দেশ করো। কথাটির তাৎপর্য লেখো। ১+২+২

১৩. “পরমাত্মা আপনার কল্যাণ করুন। কিন্তু আপনার এখানে থাকা আমার সম্ভব নয়।” – কে, কাকে, কখন এই কথাটি বলেছে? কথাটির তাৎপর্য লেখো। ৩+২

১৪. “সেদিকে ভুলেও একবার তাকালেন না বিরাগী।”—“বিরাগী’ কে ? ‘সেদিকে’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে? কোন প্রসঙ্গে এই কথা বলা। হয়েছে? ১+২+২

১৫. “ভ্রমণ করে দেখবার তো কোনো দরকার হয় না।”—এই কথাটি কে, কাকে বলেছেন? কখন বলেছেন? কথাটির অর্থ পরিস্ফুট করো। ১+১+৩

১৬. “আমার অপরাধ হয়েছে। আপনি রাগ করবেন না।”—কথাটি কে, কাকে বলেছে? কখন বলেছে? কথাটির মর্মার্থ লেখো। ১+১+৩

১৭. “আজ তোমাদের একটা জবর খেলা দেখাব।”-এই কথাটি কে, কাদের বলেছে? ‘জবর খেলাটি বর্ণনা করো।

১৮. “আপনার তীর্থ ভ্রমণের জন্য এই টাকা আমি দিলাম।”—কে, কাকে, কখন। একথা বলেছেন? এরপরের ঘটনা বিবৃত করো। ৩+২

পাঠ্যগত ব্যাকারন | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

বহুবিকল্পীয় প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করো

 

কারক-বিভক্তি

১. “হরিদা এইবার আমাদের কথার জবাব দিলেন”–‘আমাদের পদটি

(ক) কর্তৃকারকে ‘এর’ বিভক্তি (খ) কর্মকারকে ‘এর’ বিভক্তি (গ) সম্বন্ধপদে ‘এর’ বিভক্তি (ঘ) নিমিত্ত কারকে ‘এর’ বিভক্তি

Answer : (গ)

২. “হরিদা তার ভাতের হাঁড়িটাকে উনানে চড়ালেন।”—“হাঁড়িটাকে’ পদটি

(ক) কর্তৃকারকে ‘কে’ বিভক্তি (খ) করণকারকে ‘কে’ বিভক্তি (গ) কর্মকারকে ‘কে’ বিভক্তি (ঘ) কর্মকারকে ‘টাকে’ বিভক্তি

Answer : (ঘ)

৩. “সরু এই গলিটার ভিতরে এই ছোট্ট ঘরটাই হরিদার জীবনের ঘর।”— ‘ভিতরে’ পদটি

(ক) কর্মকারকে ‘রে’ বিভক্তি (খ) অপাদান কারকে ‘রে’ বিভক্তি (গ) অধিকরণ কারকে ‘রে’ বিভক্তি (ঘ) অধিকরণ কারকে ‘এ’ বিভক্তি

Answer : (ঘ)

৪. “বিচিত্র ছদ্মবেশে অপরূপ হয়ে পথে বের হয়ে পড়েন।”—‘ছদ্মবেশে পদটি

(ক) করণকারকে ‘এ’ বিভক্তি (খ) কর্তৃকারকে ‘এ’ বিভক্তি (গ) অপাদান কারকে ‘এ’ বিভক্তি (ঘ) নিমিত্ত কারকে ‘এ’ বিভক্তি

Answer : (ক)

৫. “আপনার তীর্থ ভ্রমণের জন্য এই টাকা আমি দিলাম।”—‘ভ্রমণের জন্য পদটি

(ক) কর্মকারকে ‘জন্য’ অনুসর্গ (খ) করণকারকে ‘জন্য বিভক্তি (গ) নিমিত্ত কারকে ‘জন্য’ অনুসর্গ (ঘ) নিমিত্ত কারকে ‘জন্য বিভক্তি

Answer : (গ)

সমাস

৬. “হরিদা মাঝে মাঝে বহুরূপী সেজে যেটুকু রোজগার করেন …।”—বহুরূপী সমাসবদ্ধ পদের ব্যাসবাক্য হবে

(ক) বহু যে-রূপ (খ) বহুসংখ্যক রূপ (গ) বহুরূপ ধারণ করতে সক্ষম যে (ঘ) বহুরূপ যার

Answer : (গ)

৭. “জগদীশবাবুর দুই বিস্মিত চোখ অপলক হয়ে গেল।”—‘অপলক’ শব্দের ব্যাসবাক্য নেই পলক’ হলে তার সমাস হবে

(ক) নঞ তৎপুরুষ সমাস (খ) নঞ কর্মধারয় সমাস (গ) নঞ বহুব্রীহি সমাস (ঘ) ন দ্বিগু সমাস

Answer : (ক)

৮. “জটাজুটধারী কোনো সন্ন্যাসী নয়।”—“জটাজুটধারী’ সমাসবদ্ধ পদের ব্যাসবাক্য হবে

(ক) জটাজুট ধরে আছে যে (খ) জটাজুট আছে যার (গ) যার জটা জুটের ন্যায় (ঘ) জটাজুট ধারণ করেছে যে

Answer : (ঘ)

৯. “আপনি একথা কেন বলছেন মহারাজ?”-“মহারাজ’ সমাসবদ্ধ পদের ব্যাসবাক্য ‘মহা যে-রাজ’ হলে সমাস হবে

(ক) উপপদ তৎপুরুষ সমাস (খ) সাধারণ কর্মধারয় সমাস (গ) ব্যধিকরণ বহুব্রীহি সমাস (ঘ) সমানাধিকরণ বহুব্রীহি সমাস

Answer : (খ)

১০. “তেমনি অনায়াসে সোনাও মাড়িয়ে চলে যেতে পারি।”–‘অনায়াসে সমাসবদ্ধ পদের ব্যাসবাক্য হবে

(ক) অন্য আয়াসে (খ) নেই আয়াস যাতে (গ) অন্য রকম যে-আয়াস (তাতে) (ঘ) অপরের আয়াসে

Answer : (খ)

বাক্য

১১. “উনানের মুখে ফু দিলেন আর অনেক ধোঁয়া উড়িয়ে নিয়ে হরিদা এইবার আমাদের কথার জবাব দিলেন।”—বাক্যটি গঠনগতভাবে

(ক) সরলবাক্য (খ) জটিল বাক্য (গ) যৌগিক বাক্য (ঘ) মিশ্র বাক্য

Answer : (গ)

১২. “বাঃ, এ তো বেশ মজার ব্যাপার।”—বাক্যটি

(ক) বিবৃতিমূলক বাক্য (খ) প্রশ্নবোধক বাক্য (গ) আবেগসূচক বাক্য (ঘ) ইচ্ছামূলক বাক্য

Answer : (গ)

১৩. “যারা চিনতে পারে না, তারা হয় কিছু দেয় না, কিংবা বিরক্ত হয়ে দুটো-একটা পয়সা দিয়ে দেয়।”—বাক্যটি

(ক) সরলবাক্য (খ) মিশ্র বাক্য (গ) যৌগিক বাক্য (ঘ) জটিল বাক্য

Answer : (খ)

১৪. “আপনি রাগ করবেন না।”—বাক্যটি

(ক) অনুজ্ঞাবাচক বাক্য (খ) ইচ্ছাবোধক বাক্য (গ) নির্দেশক বাক্য (ঘ) আবেগসূচক বাক্য

Answer : (খ)

১৫. “তোমরা সেখানে থেকো।”—বাক্যটি

(ক) ইচ্ছাবোধক বাক্য (খ) নির্দেশক বাক্য (গ) অনুজ্ঞাবাচক বাক্য (ঘ) বিবৃতিমূলক বাক্য

Answer : (গ)

বাচ্য

১৬. “সাতদিন হলো এক সন্ন্যাসী এসে জগদীশবাবুর বাড়িতে ছিলেন।”—উদ্ধৃতিটির বাচ্য হল

(ক) কর্তৃবাচ্য (খ) কর্মবাচ্য (গ) ভাববাচ্য (ঘ) কর্মকর্তৃবাচ্য

Answer : (ক)

১৭. “থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নিতাম।”—এর পরিবর্তিত ভাববাচ্য হবে

(ক) থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো গৃহীত হত (খ) যদি থাকত তবে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নিতাম (গ) থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নেওয়া হত (ঘ) থাকা হলে পায়ের ধুলো নিতাম

Answer : (গ)

১৮. “একটা আতঙ্কের হল্লা বেজে উঠেছিল।”—বাক্যটি

(ক) কর্তৃবাচ্য (খ) কর্মবাচ্য (গ) ভাববাচ্য (ঘ) কর্মকর্তৃবাচ্য

Answer : (ঘ)

১৯. “বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্টি করেন বহুরূপী হরিদা।”—পরিবর্তিত কর্মবাচ্যটি

(ক) হরিদার বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্টি করা হয় (খ) বহুরূপী হরিদা কর্তৃক বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্ট হয়

(গ) বহুরূপী হরিদার দ্বারা বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্ট করা হয় (ঘ) বহুরূপী হরিদার কর্তৃক বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্টকৃত হয়

Answer : (গ)

২০. “ঘুঙুরের মিষ্টি শব্দ ঝুমঝুম করে বেজে বেজে চলে যেতে থাকে।”-উদ্ধৃতিটির বাচ্য

(ক) কর্তৃবাচ্য (খ) কর্মবাচ্য (গ) ভাববাচ্য (ঘ) কর্মকর্তৃবাচ্য

Answer : (ঘ)

অভিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১) | বহুরূপী – সুবোধ ঘোষ – গল্প

কারক-বিভক্তি

১. “জগদীশবাবু যে কী কাণ্ড করেছেন।”- নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি নির্ণয় করো।

Answer : জগদীশবাবু–কর্তৃকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি।

২. “হিমালয়ের গুহাতে থাকেন।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি নির্ণয় করো।

Answer : হিমালয়ের গুহাতে—সম্বন্ধপদে ‘তে বিভক্তি গুহাতে- অধিকরণ কারকে ‘তে’ বিভক্তি।

৩. “গল্প শুনে খুব গম্ভীর হয়ে গেলেন হরিদা।”–গল্প’ পদটির কারক-বিভক্তি কী হবে?

Answer : গল্প–কর্মকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি।

৪. “হরিদা শুধু তার উনানের আগুনের আঁচে জল ফুটিয়ে দেন।”–নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি নির্দেশ করো।

Answer : আগুনের আঁচে–করণকারকে ‘এ’ বিভক্তি।

৫. “হরিদা মাঝে মাঝে বহুরূপী সেজে যেটুকু রোজগার করেন।”–‘বহুরূপী পদটির কারক-বিভক্তি নির্দেশ করো।

Answer : বহুরূপী-কর্মকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি।

সমাস

৬. “পরমাত্মা আপনার মঙ্গল করুন।”—‘পরমাত্মা’ পদটির সমাস নির্ণয় করো।

Answer : পরমাত্মা-পরম যে আত্মা (কর্মধারয় সমাস)।

৭. “শীর্ণ শরীরটাকে প্রায় অশরীরী একটা চেহারা বলে মনে হয়।”—রেখাঙ্কিত পদটির সমাস কী হবে?

Answer : অশরীরী—নয় শরীরী (নঞ তৎপুরুষ সমাস)।

৮. “ও চেহারা কি সত্যই কোনো বহুরূপীর হতে পারে?”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাস নির্ণয় করো।

Answer : বহুরূপী বহুরূপ ধারণ করে যে (উপপদ তৎপুরুষ সমাস)।

৯. “আর আমাদের চারজনের সকাল-সন্ধ্যার আড়ার ঘর।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাস নির্দেশ করো।

Answer : সকাল-সন্ধ্যা—সকাল ও সন্ধ্যা (দ্বন্দ্ব সমাস)।

১০. “হিমালয়ের গুহাতে থাকেন।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাস নির্ণয় করো।

Answer : হিমালয়ের—হিমের আলয় (সম্বন্ধ তৎপুরুষ সমাস), তার।

বাক্য

১১. “কী আর করা যাবে বল?”—না-বাচক বাক্যে পরিণত করো।

Answer : কিছুই করা যাবে না।

১২. “উনানের উপর হাঁড়িতে চাল ফুটছে।”—জটিল বাক্যে রূপ দাও।

Answer : উনানের উপর যে হাঁড়ি তাতে চাল ফুটছে।

১৩. “একটা বিড়ি ধরিয়ে নিয়ে হরিদা চুপ করে বসে আছেন।”—যৌগিক বাক্যের রূপ কী হবে?

Answer : একটা বিড়ি ধরিয়েছেন হরিদা এবং চুপ করে বসে আছেন।

১৪. “আমরা সবাই হরিদার ঘরের ভিতরে ঢুকলাম।”—না-বাচক বাক্যে রূপান্তর করো।

Answer : আমরা কেউই হরিদার ঘরের বাইরে থাকলাম না।

১৫. “সেদিকে ভুলেও একবার তাকালেন না বিরাগী।”—প্রশ্নবোধক বাক্যে পরিণত করো।

Answer : সেদিকে ভুলেও কি একবার তাকালেন বিরাগী?

বাচ্য

১৬. “পরমাত্মা আপনার মঙ্গল করুন।”—এটি কর্মবাচ্যে কী হবে?

Answer : পরমাত্মা কর্তৃক আপনার মঙ্গল হয়েছে।

১৭. “হিমালয়ের গুহাতে থাকেন।”—ভাববাচ্যে রূপ দাও।

Answer : হিমালয়ের গুহাতে থাকা হয়।

১৮. “থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নিতাম।”—ভাববাচ্যে পরিণত করো

Answer : থাকলে একবার গিয়ে পায়ের ধুলো নেওয়া হত।

১৯. “কিন্তু ওই ধরনের কাজ হরিদার জীবনের পছন্দই নয়।”—কর্তৃবাচে রূপান্তর করো।

Answer : কিন্ত ওই ধরনের কাজ হরিদা জীবনে পছন্দই করেন না।

২০. “কিন্তু একঘেয়ে কাজ করতে ভয়ানক আপত্তি।”—কর্তৃবাচ্যে পরিবর্ত করো।

Answer : কিন্তু একঘেয়ে কাজ করতে ভয়ানক আপত্তি করেন।

download-pdf

Direct Download 

Click Here

👀 প্রয়োজনীয় মূর্হুতে 🔍খুঁজে পেতে শেয়ার করে রাখুন.! আপনার প্রিয় মানুষটিকে “send as message”এর মাধ্যমে শেয়ার করুন। হয়তো এই গুলো তার অনেক কাজে লাগবে এবং উপকারে আসবে।